পঁচাত্তরের পরই ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু : শেখ হাসিনা
10 January 2017, Tuesday
ঢাকা, ১০ জানুয়ারি (জাস্ট নিউজ) : পঁচাত্তরের পরই বাংলাদেশে ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এ সময় যারা ক্ষমতায় এসেছে, তারা কখনো জাতিকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে দিতে চায়নি। কারণ তাদের দেহ এ দেশে থাকলেও মন পড়ে থাকত পাকিস্তানে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকালে সোহরাওয়ার্দী উদ‌্যানে আওয়ামী লীগের জনসভায় এ সব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পরই দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড থেমে যায়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেঁচে থাকলে ২৫/৩০ বছর আগেই বাংলাদেশ উন্নত দেশ হতো। সবাই সুখে শান্তিতে জীবন-যাপন করতে পারত।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, যুদ্ধের ভয়াবহতা কাটিয়ে যখন বাংলাদেশের মানুষ স্বপ্ন দেখতে শুরু করে তখনই ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত‌্যা করা হয়। এরপর যারাই ক্ষমতায় এসেছে, তারা নিজেদের আখের গোছানোতেই ব্যস্ত ছিল।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এই উদ্যানেই বঙ্গবন্ধু কীভাবে একটি স্বাধীন দেশকে উন্নত দেশে পরিণত করা যায়, তার পরিকল্পনা করেছিলেন। সে দিন তিনি ভাষণে বলেছিলেন, আমার দেশের প্রতিটি মানুষ খাদ্য, আশ্রয় পাবেন, উন্নত জীবন পাবেন, এই আমার স্বপ্ন।

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, পাকিস্তান হানাদার বাহিনী শেখ মুজিবুর রহমানকে গ্রেফতার করে হত্যা করতে চেয়েছিল। কিন্তু জনগণের চাপে তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় তারা। পরে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি মুক্তি পেয়ে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এসেছিলেন বঙ্গবন্ধু। আমরা সবাই সেদিন এখানে এসেছিলাম।

(জাস্ট নিউজ/একে/১৮৫৫ঘ.)