Thursday November 23, 2017
জাতীয়
12 November 2017, Sunday
প্রিন্ট করুন
মানববন্ধনে স্বজনরা
তিন দিনের মধ্যে সিজারকে ফেরত চাই
জাস্ট নিউজ -
ঢাকা, ১২ নভেম্বর (জাস্ট নিউজ) : বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোবাশ্বার হাসান সিজারকে তিন দিনের মধ্যে উদ্ধার করতে পুলিশকে সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে এক কর্মসূচিতে। সিজারের সাবেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তার বিভাগের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থী এবং স্বজনরা মানববন্ধন করে এই দাবি জানিয়েছে।

রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ‘শিক্ষক, বন্ধু ও স্বজন’ ব্যানারে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এতে বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে সিজারকে খুঁজে বের করতে না পারলে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

মঙ্গলবার নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে ক্লাস নেয়ার পর থেকে সিজারের মোবাইল ফোন বন্ধ। তাঁর কোনো খোঁজ না পেয়ে ওই রাতেই খিলগাঁও থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন সিজারের বাবা সাবেক সরকারি কর্মকর্তা মোতাহের হোসেন।

পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ থাকা সিজারকে উদ্ধারের দাবিতে মানববন্ধন করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীরা। এই বিভাগেই সিজার পড়াশোনা করেন। পরে তিনি যুক্তরাজ্য থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে এসে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে যোগ দেন।

মানববন্ধনে সিজারের সহপাঠী, বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক, স্বজন এবং শুভানুধ্যায়ীরাও অংশ নেন। বক্তব্য রাখেন সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান, শিক্ষক গীতি আরা নাসরিন, রোবায়েত ফেরদৌস, সিজারের ছোট বোন তামান্না প্রমুখ।

অধ্যাপক মফিজুর রহমান বলেন, গুম ভয়াবহ ব্যাপার। যে-ই গুম করুক না কেন, তাঁকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব রাষ্ট্রের।’ তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্র প্রয়োজনে যে কোন নাগরিককে প্রশ্নের সম্মুখীন করতে পারে। তবে সেটি নিয়ম অনুযায়ী হতে হবে।

বিশ্বায়ন, ইসলাম, জঙ্গিবাদ নিয়ে নানা গবেষণা করছিলেন এই সিজার।  তার এসব কাজের সঙ্গে তার অন্তর্ধানের কোনো সম্পর্ক থাকতে পারে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার আছে। মানববন্ধনেও এই বিষয়টি উঠে আসে।

রুবায়েত ফেরদৌস বলেন, রাষ্ট্র সৃষ্টির অন্যতম মূল লক্ষ্য হলো নাগরিককে নিরাপত্তা প্রদান। কিন্তু আমাদের রাষ্ট্র তা করতে ব্যর্থ হয়েছে। জঙ্গিবাদ ও নিরাপত্তা নিয়ে সিজারের গবেষণার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, রাষ্ট্রশিক্ষক ও গবেষকদের প্রতিপক্ষ হয়ে যাচ্ছে, যেটা নিতান্তই দুঃখজনক।   

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক গীতিআরা নাসরিন বলেন, আমাদের দেশে প্রতি ১০০ ঘণ্টায় একজন করে গুম ও নিখোঁজ হচ্ছে। এটা দেশের জন্য খুবই হতাশাজনক। তিনি বলেন, গুমের ঘটনা দেশে এই প্রথম নয়। কিন্তু ক্ষমতাবান ব্যাক্তি এই ঘটনাকে স্বাভাবিক হিসেবে আখ্যায়িত করতে চাইছেন। যদিও এটি স্বাভাবিক ঘটনা নয়।

সিজারের ছোট বোন তামান্না তাঁর ভাইকে যেকোনো মূল্যে ফেরত চেয়ে জানিয়েছেন, তার ভাইকে উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়েছে।

তামান্না বলেন, আমার ভাইয়ের নামে কেউ মিথ্যা তথ্য ছড়াবেন না। দরকার হলে আমাদের সঙ্গে তাঁর ব্যাপারে কথা বলুন। কোনো তথ্য লাগলে আমরা দেব।

(জাস্ট নিউজ/ওটি/১৫৫২ঘ.)


মতামত দিন
জাতীয় :: আরও খবর
প্রচ্ছদ
ছবি গ্যালারী
যোগাযোগ