Saturday October 21, 2017
বিশেষ রিপোর্ট
09 July 2017, Sunday
প্রিন্ট করুন
ট্রাম্প-পুতিন বৈঠকই সার
ঘটন অঘটনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো জি টোয়েন্টি সম্মেলন
জাস্ট নিউজ -
হ্যামবুর্গ  বিমানবন্দর থেকে মুশফিকুল ফজল আনসারী, ৮ জুলাই (জাস্ট নিউজ): কোনো ধরনের ফলাফল ছাড়াই সাঙ্গ হলো জার্মানির হ্যামবুর্গে আয়োজিত ২০ জাতির জি-টোয়েন্টি সম্মেলন। সম্মেলন বিরোধীদের নজিরবীহিন বিক্ষোভ আর উন্নত ও স্বল্পোন্নত দেশের নেতাদের মতানৈক্যে তৈরি অচলাবস্থার মধ্যে যার যার দেশের ফিরতি ফ্লাইটে উড়াল দিয়েছেন বিশ্ব নেতারা।

৭-৮ এপ্রিলের দুদিনের সম্মেলনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির  পুতিনের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক। পুরো বিশ্বের নজর ছিলো ঐ বৈঠকের দিকে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের পদে ট্রাম্প  আসীন হবার পর দুই পরাশক্তিধর দেশের মধ্যে এটাই ছিল প্রথম ঐতিহাসিক বৈঠক।

শনিবার সম্মেলনের শেষ দিনে জলবায়ু ইস্যুতে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট অনেক আগেই প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বের হয়ে আসার ঘোষণা দিয়েছিলেন। ট্রাম্প ব্যাতীত অন্যান্য নেতারা জলবায়ু ইস্যুতে পূর্বের ঘোষণার সমর্থন পুর্নব্যক্ত করেন। এছাড়া সম্মেলনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত 'নরকে পথে যাও' শ্লোগানে বিক্ষোভকারীরা ব্যাপক বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। তারা সম্মেলন স্থল ঘেরাও, রাজপথ অবরোধ, ভাঙচুর, পুলিশের গাড়িতে আগুন দেবার মতো সহিংস ঘটনা ও ঘটিয়েছে।

বাণিজ্য নিষেধজ্ঞা বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন। জলবায়ু চুক্তিতে ট্রাম্পকে ফেরাতে না পেরে হতাশা প্রকাশ করেছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ও জার্মান চ্যান্সেলর আ্যাঙ্গেলা মার্কেল। তবে সিরিয়া ও ইউক্রেন ইস্যুতে মতোঐক্য লক্ষ্য করা গেছে।

১৯  জাতি নেতারা সম্মেলনের সাইডলাইনে একে অপরের সঙ্গে বৈঠক করে বৈপরিত্য কমাত চেষ্টা করেছেন সাধ্যমতো। পুতিনের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠকের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট বৈঠক করেছেন যুক্তরাজ্য, চীন, জাপান, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মান, তুরস্ক, ইন্দোনেশিয়া, মেক্সিকো, সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্র প্রধানদের সাথে।

শনিবার সম্মেলনের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, প্যারিস জলবায়ু চুক্তি অবশ্য বাস্তবায়ন যোগ্য। এ বিষয়ে জি টোয়েন্টি নেতারা ঐকমত্যে পৌঁছেছে। এছাড়া বিবৃতিতে প্যারিস চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বের হয়ে যাবার সমালোচনা করা হয়েছে।

প্যারিস চুক্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমিকরা ক্ষতিগ্রস্থ হবে এ যুক্তিতে চুক্তি থেকে সরে আসার ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

সম্মেলন শেষে সংবাদ সম্মেলনে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল বলেন, এটা স্পষ্ট যে আমরা কোনো সমঝোতার ঐকমত্যে পৌঁছাতে পারিনি। তবে মতপার্থক্য সমাধানের সুযোগ চলে যায়নি।

সম্মেলনের আলোচিত বিষয় ছিলো ট্রাম্প-পুতিন বৈঠক। বৈঠকের আলোচিত বিষয় ছিল যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ। এবিষয়ে শনিবারও পুতিন দৃঢ়ভাবে বলেছেন, আমার বিশ্বাস ট্রাম্প এ নিশ্চয়তা পেয়েছেন যে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে রাশিয়া কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করেনি।


(জাস্ট নিউজ/প্রতিনিধি/জিইউএস/০০৫০ঘ)
মতামত দিন
বিশেষ রিপোর্ট :: আরও খবর
প্রচ্ছদ
ছবি গ্যালারী
যোগাযোগ