Monday May 29, 2017
রাজনীতি
17 May 2017, Wednesday
প্রিন্ট করুন
বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রে দলের লোকরাও ছিল: শেখ হাসিনা
জাস্ট নিউজ -
ঢাকা, ১৭ মে (জাস্ট নিউজ) : বঙ্গবন্ধুকে হত্যায় তৎকালীন মন্ত্রী খোন্দকার মোশতাক আহমেদের জড়িত থাকার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেছেন, আসলে ঘরের শত্রু বিভীষণ। ঘরের থেকে শত্রুতা না করলে বাইরের শত্রু সুযোগ পায় না। আর সে সুযোগটা তারা করে দিয়েছিল।

নিজের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বুধবার গণভবনে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ের সময় এসব কথা বলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

এই হত্যাকাণ্ডে যারা জড়িত ছিলেন, তাদের অনেকেই নিয়মিত ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে যেতেন বলে জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ডালিম (শরিফুল হক ডালিম), ডালিমের শাশুড়ি, ডালিমের বউ, ডালিমের শালী ২৪ ঘণ্টা আমাদের বাসায় পড়ে থাকত। ডালিমের শাশুড়ি তো সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত। আর ডালিমের বউ সারাদিনই আমাদের বাসায় থাকত। আরেক খুনি সৈয়দ ফারুক রহমান বঙ্গবন্ধুর তৎকালীন মন্ত্রিসভার অর্থমন্ত্রী এ আর মল্লিকের শালীর ছেলে ছিল। এরা তো অত্যন্ত চেনা মুখ। এরাই ষড়যন্ত্র করল।

শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে তাদের যাওয়াটা আন্তরিকতা না.. চক্রান্ত করাটাই ছিল তাদের লক্ষ্য। সেটা আমরা বোধ হয় বুঝতে পারি নাই।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, অনেকেই তাকে (বঙ্গবন্ধু) সাবধান করেছিলেন, এরকম একটা ঘটনা ঘটতে পারে। কিন্তু তিনি বিশ্বাসই করেন নাই। আব্বা বলতেন, ‘না, ওরা তো আমার ছেলের মতো, আমাকে কে মারবে?’

শেখ হাসিনা বলেন, আমার মাঝে মধ্যে মনে হয়, আব্বা যখন দেখেছেন, তাকে গুলি করছে, তারই দেশের লোক, তারই হাতে গড়া সেনাবাহিনীর সদস্য, জানি না তখন তার মনে কী প্রশ্ন জেগেছিল?

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার সময় দেশের বাইরে ছিলেন দুই বোন শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। এদিন তারা ছিলেন বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে।

ছয় বছর প্রবাসে থাকার পর ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে বাবার দল আওয়ামী লীগের হাল ধরেন শেখ হাসিনা।

(জাস্ট নিউজ/একে/২০০২ঘ.)

মতামত দিন
রাজনীতি :: আরও খবর
প্রচ্ছদ
ছবি গ্যালারী
যোগাযোগ