Saturday June 24, 2017
বিশেষ রিপোর্ট
23 September 2016, Friday
প্রিন্ট করুন
নিউইয়র্কে শেখ হাসিনার সমাবেশে ব্যাপক মারামারি
জাস্ট নিউজ -
বিশেষ সংবাদদাতা, ২২ সেপ্টেম্বর (জাস্ট নিউজ) : নিউইয়র্কে নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য শেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেরিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তর্কাতর্কি থেকে ধাওয়া-ধাওয়িতে জড়ালেন প্রবাসের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের হৈ চৈ ও হট্টগোলে উপস্থিত শিশুসহ নারী-পুরুষদের এদিক-ওদিক দৌড়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করতে দেখা যায়।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানকে উদ্দেশ্য করে ‘ধর-ধর-সিদ্দিক ধর’, ‘হৈ হৈ রৈ রৈ-সিদ্দিক তুই গেলি কই’ ইত্যাদি স্লোগানের মধ্যে বেশ কয়েক মিনিট ধরে চলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া।

চেয়ার ছোড়াছুড়ির মধ্যে কয়েকজন নারীকে মিলনায়তনের মেঝেতে পড়ে যেতে দেখা যায়।

স্থানীয় সময় বুধবার রাতের এ ঘটনা নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ ডাকেন হোটেল গ্র্যান্ড হায়াতের নিরাপত্তা রক্ষীরা।

জাতিসংঘের ৭১তম সাধারণ অধিবেশনে ভাষণের পরই রাত সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠানস্থলে আসেন শেখ হাসিনা। চার ধর্মীয় গ্রন্থ থেকে পাঠের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান।

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত বাজানোর পর উপস্থাপক স্বাগত বক্তব্যের জন্য যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদের নাম ঘোষণা করেন।

মঞ্চের কাছাকাছি থাকা আজাদ যখন মাইক হাতে নিতে যান, সে সময় মঞ্চে শেখ হাসিনার পাশ থেকে উঠে এসে মাইক কেড়ে নেন সভাপতি সিদ্দিকুর। নিজেই মিনিটখানেকের স্বাগত বক্তব্য দিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে বক্তব্যের আহ্বান জানান।

এ ঘটনার পরই মিলনায়তনে শুরু হয় উত্তেজনা। তবে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দেওয়ায় সে সময় তা সংঘর্ষে গড়ায়নি।

টানা ৫০ মিনিট বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা। তার বক্তব্যে মাঝামাঝিতে মিলনায়তনের পেছনের অংশে গোলযোগ দেখা দিলে নিরাপত্তা রক্ষী এবং প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় ঢাকা থেকে আসা এসএসএফ সদস্যদের মধ্যস্থতায় তা মিটে যায়।

তবে বক্তব্য শেষে শেখ হাসিনা মঞ্চ ত্যাগের পরই ভিন্নরূপ নেয় পুরো মিলনায়তন। ছাত্রলীগের একদল কর্মীর মধ্যে কথা কাটাকাটির পর শুরু হয় ধাওয়া-ধাওয়ি। দ্রুতই তা ছড়িয়ে পড়ে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের মধ্যে।

মিলনায়তন ভরে যাওয়ায় অনুষ্ঠান চলাকালে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েক প্রবাসীও এ সময় ভেতরে ঢুকে আয়োজকদের উদ্দেশ্যে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন।

(জাস্ট নিউজ/একে/২২০৭ঘ.)
মতামত দিন
বিশেষ রিপোর্ট :: আরও খবর
প্রচ্ছদ
ছবি গ্যালারী
যোগাযোগ